You are here
Home > বাংলাদেশ > বশেমুরবিপ্রবিতে দ্রুত সময়ে বঙ্গবন্ধুর ম্যুরাল নির্মাণের দাবি শিক্ষক সমিতির

বশেমুরবিপ্রবিতে দ্রুত সময়ে বঙ্গবন্ধুর ম্যুরাল নির্মাণের দাবি শিক্ষক সমিতির

Share

কে.এম.ইয়ামিনুল হাসান আলিফ,বশেমুরবিপ্রবি প্রতিনিধি, গোপালগঞ্জ

গোপালগঞ্জের বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে দ্রুততম সময়ের মধ্যে জাতির পিতার ম্যুরাল নির্মাণের দাবি জানিয়েছে শিক্ষক সমিতি। একইসাথে যুগোপযোগী ও আধুনিক মেডিকেল সেন্টার চালু করে শিক্ষার্থীদের সঠিক চিকিৎসা সেবা নিশ্চিতের দাবি জানিয়েছে বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতি। উপাচার্য বরাবর স্মারকলিপি প্রদান করে এ দাবি জানায় বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতি।

শিক্ষক সমিতির সাধারণ সম্পাদক আবু সালেহ জানান গত সোমবার (১৫ মার্চ) শিক্ষক সমিতির গৃহীত সিদ্ধান্তের প্রেক্ষিতে এ দাবি জানানো হয়েছে।
সংগঠনটির সভাপতি ড. মোঃ কামরুজ্জামান ও সাধারণ সম্পাদক আবু সালেহ স্বাক্ষরিত স্মারকলিপিটি গত বৃহস্পতিবার (১৮ মার্চ) বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য ড. একিউএম মাহবুব এর দপ্তরে হস্তান্তর করা হয় বলেও জানিয়েছেন বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতির সাধারণ সম্পাদক আবু সালেহ।

স্মারকলিপিতে বলা হয়, সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি, স্বাধীন বাংলাদেশের স্থপতি, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নামে প্রতিষ্ঠিত, তারই জন্মস্থান গােপালগঞ্জে অবস্থিত বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে দীর্ঘদীন ধরে বঙ্গবন্ধুর ম্যুরাল নির্মাণে কোন দৃশ্যমান উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়নি যা অত্যন্ত দুঃখজনক বলে শিক্ষক সমিতি মনে করে। বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রতিষ্ঠাকাল থেকে দায়িত্বপ্রাপ্ত প্রশাসনের অবহেলা ও খামখেয়ালি মনােভাবের কারণেই জাতির পিতার ম্যুরালটি আজও নির্মাণ করা হয়নি। আমরা বশেমুরবিপ্রবি শিক্ষক সমিতি খুবই দ্রুততম সময়ে বঙ্গবন্ধু মুরাল নির্মাণের জোর দাবি জানাচ্ছি।

স্মারকলিপিতে মেডিকেল সেন্টার চালুর দাবি জানিয়ে বলা হয়, বিশ্ববিদ্যালয়ের মেডিকেল সেন্টারটিও দীর্ঘদিন ধরে অবহেলায় চিকিৎসা সেবা দানের অনুপযোগী রয়েছে। বর্তমানে যে সেবা প্রদান করা হয় বিশেষ করে সাধারণ শিক্ষার্থীদের, তা পর্যাপ্ত নয় বলে শিক্ষক সমিতি মনে করে। তাই দ্রুততম সময়ে যুগােপযােগী ও আধুনিক মেডিকেল সেন্টার চালু করে সঠিক চিকিৎসা সেবা নিশ্চিতের জোর দাবি জানাচ্ছি। সেই সাথে বিশ্ববিদ্যালয়ে জরুরি সেবা দানে একটি নতুন অ্যাম্বুলেন্স সংযােজন করা ও বিশ্ববিদ্যালয়ের সাধারণ শিক্ষার্থীদের ২৪ ঘন্টা চিকিৎসা সেবা সুনিশ্চিত করার জোর দাবি জানাচ্ছি।

প্রসঙ্গত, ২০১৫ সাল থেকে শুরু হওয়া বশেমুরবিপ্রবি অধিকতর উন্নয়ন প্রকল্পের অধীনে বশেমুরবিপ্রবিতে বঙ্গবন্ধুর ম্যুরাল নির্মাণের কথা থাকলেও এখন পর্যন্ত ম্যুরালের নির্মাণ কাজ শুরু হয়নি।অন্যদিকে মেডিকেল সেন্টারটিতে যথাযথ চিকিৎসার অভাব রয়েছে বলে দীর্ঘদিন ধরে অভিযোগ করে আসছিলো শিক্ষার্থীরা।

Leave a Reply

Top