বরিশালে পণ্যের পাটজাত মোড়ক ব্যবহার না করায় জরিমানা

প্রকাশিত: ২:০৫ অপরাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ৯, ২০২১

বরিশালে পণ্যের পাটজাত মোড়ক ব্যবহার না করায় জরিমানা
Share

একদিকে সোনালি আঁশ পাটের বহুমুখী ব্যবহার নিশ্চিত করা অন্যদিকে পরিবেশ রক্ষায় ২০ কেজির বেশি চাল, চিনি, গম, ভুট্টাসহ খাদ্যদ্রব্যের মোড়কে পাটের বস্তা বা ব্যাগ ব্যবহারে বাধ্যতামূলক করতে আইন করেছে সরকার। পলিথিন ব্যাগ অধিক হারে ব্যবহারে পরিবেশের মারাত্মক ক্ষতি হয়। পলিথিন ও পলিপ্রোপাইলিন মাটির গুণাগুণের ক্ষতি সাধন করে এবং পয়ঃনিষ্কাশন ব্যবস্থা বাধাগ্রস্ত করে। অন্যদিকে পাটজাত মোড়ক পুনর্ব্যবহারযোগ্য, পচনশীল ও পরিবেশবান্ধব। এ কারণে পাটজাত ব্যাগের গুরুত্ব বেড়েছে কিন্তু প্রভাব বাড়েনি। পরিবেশ দূষণ রোধে সরকারের পাট অধিদপ্তর এবং বস্ত্র ও পাট মন্ত্রণালয় যৌথভাবে পণ্যে পাটজাত মোড়কের বাধ্যতামূলক ব্যবহার নিশ্চিত করার লক্ষ্যে ব্যাপক প্রচার-প্রচারণা চালিয়ে যাচ্ছেন। আশানুরূপ ফল না আসায় বাজারে পলিথিন ও কৃত্রিম তন্তুর ব্যাগেরই আধিপত্য বিস্তার বাড়ছে।

পণ্য সরবরাহ ও বিতরণে কৃত্রিম তন্তুর মোড়কের ব্যবহারে সৃষ্ট পরিবেশ দূষণ রোধকল্পে বাধ্যতামূলক পাটজাত মোড়ক ব্যবহার নিশ্চিতকরণে বরিশালের সিটি কর্পোরেশনের বিভিন্ন দোকানে অভিযান চালিয়েছে ভ্রাম্যমাণ আদালত। এসময় দোকানে পণ্যের পাটজাত মোড়ক ব্যবহার না করায় ২ টি দোকানকে জরিমানা করা হয়েছে।

মঙ্গলবার (৯ ফেব্রুয়ারি) সকালে পণ্যের পাটজাত মোড়ক শতভাগ বাস্তবায়নের জন্য এই অভিযান পরিচালনা করেছেন জেলার নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সুব্রত বিশ্বাস দাস।

নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সুব্রত বিশ্বাস দাস জানান, পণ্যে পাটজাত মোড়কের বাধ্যতামূলক ব্যবহার আইন ২০১০ এর ৫৩ নং আইন অনুযায়ী ধান, গম, চাল, ভুট্টা, সার, চিনি এবং উক্ত আইনের সংশোধিত ধারা ২২ এ প্রদত্ত ক্ষমতাবলে মরিচ, হলুদ, পেঁয়াজ, আদা, রসুন, ডাল, ধনিয়া, আলু, আটা, ময়দা, তুষ-খুদ-কুড়া পণ্যে পাটজাত মোড়ক ব্যবহার না করে কৃত্রিম মোড়ক ব্যবহার করায় উক্ত আইনের ৪ নং ধারা অনুযায়ী সুস্পষ্ট লঙ্ঘন করায় এ জরিমানা করা হয়েছে। জনস্বার্থে তাদের এ অভিযান অব্যাহত থাকবে।

এই সংবাদটি 2 বার পঠিত হয়েছে

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ