You are here
Home > বাংলাদেশ > বরিশালে চেয়ারম্যান ও মেম্বার গ্রুপের মধ্যে উত্তেজনা; সংঘর্ষের আশঙ্কা!

বরিশালে চেয়ারম্যান ও মেম্বার গ্রুপের মধ্যে উত্তেজনা; সংঘর্ষের আশঙ্কা!

Share

ভিজিডি কার্ডের চাল কম দেয়ার প্রতিবাদ করায় প্রকাশ্যে ইউপি সদস্যকে মারধর করেছেন চেয়ারম্যান। এ ঘটনার পর থেকে চেয়ারম্যান ও মেম্বারের সমর্থকদের মধ্যে চরম উত্তেজনা বিরাজ করছে। এনিয়ে যেকোন সময় বড় ধরনের সংঘর্ষের আশঙ্কা করছেন এলাকাবাসী। ঘটনাটি জেলার বাবুগঞ্জ উপজেলার বীরশ্রেষ্ঠ জাহাঙ্গীর নগর ইউনিয়নের।

সোমবার সকালে সরেজমিনে ওই ইউনিয়নের ২নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য হাবিবুর রহমান রিপন অভিযোগ করেন, শিলনদিয়া (রাস্তার মাথা) নামক এলাকায় বসে রবিবার সকাল দশটার দিকে ভিজিডির উপকারভোগীদের চাল দেয়ার কার্যক্রম চলছিলো। এসময় ইউপি চেয়ারম্যান তারেকুল ইসলাম তারেক সরদারের উপস্থিতিতে প্রতিজন সুবিধাভোগিকে ৩০ কেজির স্থলে ৪/৫ কেজি করে চাল কম দেয়ায় তিনি প্রতিবাদ করেন। এতে চেয়ারম্যান ক্ষিপ্ত হয়ে প্রকাশ্যে তাকে (ইউপি সদস্য) মারধর করে ঘটনাস্থল থেকে তাড়িয়ে দেয়। পরে তিনি আগরপুর বাজারে এসে বিষয়টি জেলা প্রশাসক ও উপজেলা নির্বাহী অফিসারকে মোবাইল ফোনে অবহিত করেন। কর্মকর্তারা তাৎক্ষনিক বিষয়টি ইউপি চেয়ারম্যানের কাছে জানতে চায়। এতে তিনি (চেয়ারম্যান) ক্ষিপ্ত হয়ে দ্বিতীয় দফায় হামলার জন্য তার সহযোগিদের নিয়ে আগরপুর বাজারে মোটরসাইকেল মহড়া নিয়ে তাকে (রিপন) খুঁজতে থাকে। এসময় আত্মরক্ষার্থে তিনি (ইউপি সদস্য) স্থানীয় পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রে আশ্রয় নিয়ে প্রাণরক্ষা পায়। বিষয়টি তার (রিপন) সমর্থকদের মধ্যে ছড়িয়ে পরলে কয়েকশ’ সমর্থকরা জড়ো হয়ে চেয়ারম্যান গ্রুপের ওপর পাল্টা হামলার প্রস্তুতি নেয়। পরবর্তীতে ইউপি সদস্যর হস্তক্ষেপে পরিস্থিতি শান্ত হলেও তার সমর্থকদের মধ্যে এখনও চরম উত্তেজনা বিরাজ করছে।

সোমবার দুপুরে ইউপি চেয়ারম্যান তারেকুল ইসলাম তারেক সরদারের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, ইউপি সদস্য হাবিবুর রহমান রিপন অন্য ওয়ার্ডের সুবিধাভোগিদের মাঝে ভিজিডি কার্ডের চাল দেয়ার সময় অহেতুক ঝামেলার সৃষ্টি করেছে। তাকে মারধরের অভিযোগ সঠিক নয়

Top