You are here
Home > বাংলাদেশ > “বিজিএফ” যেখানে গল্প হয় মানবতার, হাসি ফুটে সুবিধাবঞ্চিতদের

“বিজিএফ” যেখানে গল্প হয় মানবতার, হাসি ফুটে সুবিধাবঞ্চিতদের

Share

সময়ের সাথে সাথে নতুন মুখ যুক্ত হয়, ঘরে ফিরে যায় পুরাতন মানুষেরা, শুধু অক্ষত থাকে যাত্রাপথ।

আমরা চাই আশেপাশের দুঃখী, অসহায় মানুষকে সাহায্য করতে। তবে ব্যাপারটা কিন্তু এত সহজও নয়। সহজ নয় কথাটি এ জন্য বলা যে, মানুষের সদিচ্ছার অভাব আজকাল। আবার অনেককেই পাওয়া যায়, লোক দেখানো সহযোগিতা করতে। ফেসবুক-ইউটিউবের এ যুগে দুস্থ ও অসহায় মানুষকে দান করা এবং তাদের পাশে সহযোগিতার জন্য দাঁড়ানোর ঘটনা- এসব মাধ্যমে প্রচার করে খুব সহজেই দানবীর ও মানবতার কাণ্ডারি উপাধি পাওয়া যায়! তবে করোনার এ সংকটকালে এরকম মৌসুমী মানবতার কাণ্ডারিদের দেখা মিলছে না। এখন দেখা মিলে বাগেরহাটিয়ান গার্লস ফোরাম-বিজিএফ নামে কিছু স্বপ্নবাজ মেয়েদের যারা বাগেরহাটকে নিয়ে ভালো কিছু করার স্বপ্ন দেখে। গ্রুপের এডমিন মাসুমা রুনার সাথে কথা বলে এমনটাই জানা গেছে।

তার ভাষ্যমতে, বাগেরহাটে একটা দেয়াল হবে যেখানে মানুষের অপ্রয়োজনীয় ব্যবহারযোগ্য কাপড় রেখে আসতে পারবে। আর যার সেই কাপড়ের প্রয়োজন হবে সে নিয়ে যাবে।
বিজিএফ এর মানবতার দেয়ালের স্লোগান ছিলো
“সকলের তরে সকলে আমরা, প্রত্যেকে মোরা পরের তরে”

বাগেরহাটের বিভিন্ন জায়গায় BGF এর মানবতার দেয়ালে মোট ৫টা ব্যানার স্থাপিত হয়েছে যেখান থেকে অনেক মানুষ উপকৃত হচ্ছেন।গ্রুপের অন্যান্য সদস্যরা এগিয়ে আসছেন স্ব স্ব জায়গা থেকে মানুষের উপকারের জন্য। আসলে এইকারনেই হয়তো কবি বলেছেন, “মানুষ মানুষের জন্য”।
মানবতার দেয়াল বিজিএফ কর্তৃক বাগেরহাটে চলমান থাকবে।

সরজমিনে গিয়ে দ্যাখা গিয়েছে পুরোনো কাপড় পেয়েও মানুষ কতো খুশি হচ্ছেন। আরো কিছু মানুষের মুখে হাসি ফোটাতে গ্রুপের মেম্বার্সরা মাসুমা রুনার উদ্যোগে কাজ করে যাচ্ছে মানবতার সেবায়।

বাগেরহাটিয়ান গার্লস ফোরামের উদ্যোগে ” মানবতার দেয়াল” এ কাপড় রাখার স্থান-

১. পুরাতনবাজার মোড়
২.গভঃগার্লস স্কুল গেটের পাশে
৩.রেলরোড শুভেচ্ছা স্কুলের সামনে
৪.নাগেরবাজার প্রথম কালভার্টের পাশে
৫.স্টাফ কোয়ার্টারের পাশে

সারাবছর এই কার্যক্রম অব্যাহত থাকবে।মেয়েদের একসাথে এই কাজ গুলি আজকে শহরের চেহারা বদলে দিচ্ছে। অনেকেই এগিয়ে আসছেন বিজিএফ এর সাথে কাজ করার জন্য যেটা সত্যিই প্রশংসনীয়। যেখানে যাত্রাটাই মুখ্য, যাত্রী নয়।

 

Top