গাইবান্ধায় দুই মেয়র প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া

প্রকাশিত: ৬:২৬ অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ১৬, ২০২১

গাইবান্ধায় দুই মেয়র প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া
Share

গাইবান্ধা পৌরসভা নির্বাচনে গাইবান্ধা পৌরসভার ৫নং ওয়ার্ডের আদর্শপাড়া এলাকার সরকারি টেক্সটাইল ভোকেশনাল ইনষ্টিটিউট কেন্দ্রে দুই মেয়র প্রার্থীর সমর্থকদের মাঝে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটেছে।ভোটের স্লিপ সংগ্রহ ও ব্যালট সংক্রান্ত জটিলতায় দলীয় ও স্বতন্ত্র প্রার্থীর সমর্থকদের মাঝে এ ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার ঘটনাটি ঘটে সকাল ১১টায়। এতে অন্তত ৫জন আহত হয়। খবর পেয়ে আওয়ামীলীগ মনোনীত মেয়র প্রার্থী শাহ মাসুদ জাহাঙ্গীর কবির মিলন ও স্বতন্ত্র প্রার্থীর মতলুবর রহমান ঘটনাস্থলে আসলে উভয়ের মাঝে বাকবিতন্ডা হয়।এ ঘটনায় উত্তেজনা সৃষ্টি হলে ভোটগ্রহণ স্থগিত করা হয়।পরে অতিরিক্ত পুলিশ সদস্য ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রাফিউল আলম ঘটনাস্থলে এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনলে পুনরায় ভোটগ্রহণ শুরু করা হয়।

এবিষয় নিশ্চিত করে, গাইবান্ধা সদর উপজেলা নির্বাচন অফিসার ও সহকারী রিটানিং অফিসার মো. আব্দুল লতিফ বলেন, এঘটনায় প্রায় ৩০ মিনিট ভোট গ্রহন স্থগিত রাখা হয়। পরে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও পুলিশের তৎপরতায় পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আসলে ভোট গ্রহন শুরু করা হয়। তিনি আরও বলেন গাইবান্ধা পৌরসভা নির্বাচনে শান্তিপূর্ণ পরিবেশে ভোট গ্রহন করা হয়েছে । একটি কেন্দ্রে সামান্য অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটলেও সারাদিন নির্বাচনের সার্বিক পরিস্থিতি ভালো ছিলো।কেন্দ্রে কেন্দ্রে দীর্ঘ লাইনে দাঁড়িয়ে ভোটাররা ভোট প্রদান করেছে।

জানাযায়,গতকাল শুক্রবার (১৫ জানুয়ারী) বিকেলে ব্যালট পেপার ছাড়া ভোট গ্রহনের জন্য সকল সরঞ্জামাধি প্রতিটি কেন্দ্রে পাঠানো হয়। আজ শনিবার সকাল ৭ টার মধ্যে সকল কেন্দ্রে ব্যালট পেপার পৌচ্ছে দেয়া হয় এবং সকাল ৮টা থেকে ভোট গ্রহণ শুরু হয়ে বিকাল ৪টায় শেষ হয়। এখন চলছে গণনা||

তথ্যসুত্রে জানা যায়, গাইবান্ধা পৌরসভায় মেয়র পদে ৮ প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। তারা হলেন, আওয়ামীলীগের মনোনীত প্রার্থী শাহ মাসুদ জাহাঙ্গীর কবীর (নৌকা, বিএনপির মো. শহিদুজ্জামান শহীদ (ধানের শীষ), স্বতন্ত্র মো. আনওয়ার-উল-সরওয়ার (রেল ইঞ্জিন), ফারুক আহমেদ (কেরাম বোর্ড), মো. শামছুল আলম (মোবাইল), মো. আহছানুল করিম (চামুচ), মো. মির্জা হাসান (জগ) ও মতলুবর রহমান (নারীকেল গাছ) প্রতীক। এছাড়া সংরক্ষিত নারী পদে ১৭ জন এবং সাধারণ কাউন্সিলর পদে ৪১ জন প্রার্থী রয়েছে।এ পৌরসভায় পুরুষ ২৪ হাজার ৫৯০ জন এবং নারী ভোটার ২৬ হাজার ৭৯৭ জন মোট ৫১ হাজার ৩৮৭ জন ভোটার তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করেন।

এদিকে শনিবার সকালে পৌরসভার বিভিন্ন ভোট কেন্দ্র পরিদর্শন করেছেন জেলা প্রশাসক আব্দুল মতিন ও জেলা পুলিশ সুপার তৌহিদুল ইসলাম।

এই সংবাদটি 0 বার পঠিত হয়েছে

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ