সফলতার সাথে সমাপ্তি ঘটলো সৃজনশীলতায় বিজয় ইভেন্টের

মু.তামিম সিফাতুল্লাহ, রাজশাহী প্রতিনিধি
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  11:26 AM, 10 January 2021

Share

সর্বদা মানব সেবায় নিয়োজিত মর্মে উজ্জীবিত স্বেচ্ছাসেবী সমাজ সেবামূলক সংগঠন “বাংলাদেশ হিউম্যান হেল্পিং সোসাইটি”-এর ব্যতিক্রমী ইভেন্ট ‘সৃজনশীলতায় বিজয়’ সফল ভাবে সমাপ্ত হয়েছে।

গত ডিসেম্বরের প্রথম সপ্তাহে বিজয়ের মাস উপলক্ষ্যে সংগঠনটির শিক্ষা বিভাগ কর্তৃক উদ্যোগ নেয়া হয় এক ব্যতিক্রমী ইভেন্ট “সৃজনশীলতায় বিজয়”-এর। উক্ত ইভেন্টে ০৮ টি সেগমেন্টে বাংলাদেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে বহু সংখ্যক প্রতিযোগী অংশগ্রহণ করে।

গত ৩১ ডিসেম্বর জুম লাইভে সৃজনশীলতায় বিজয় ইভেন্টের ফলাফল ঘোষণা করা হয়। এসময় আলোচক হিসেবে সংযুক্ত ছিলেন সফল উদ্যোক্তা ও শিক্ষক জনাব.সামছুল আলম, আন্তর্জাতিক খ্যাতিমান সম্পন্ন কবি ও গবেষক জনাব.ইমরান মাহফুজ এবং সংগঠক ও কলামিস্ট জনাব.জাহানুর ইসলাম। উক্ত অনুষ্ঠানের সভাপতিত্ব করেন বাংলাদেশ হিউম্যান হেল্পিং সোসাইটি’র কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক মোঃমাহমুদুল হাসান। অনুষ্ঠানে আরো সংযুক্ত ছিলেন সংগঠনটির কেন্দ্রীয় পর্যায়ের সদস্য,বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি, স্বেচ্ছাসেবক এবং ইভেন্টে অংশগ্রহণকারীবৃন্দ।

সৃজনশীলতায় বিজয় ইভেন্ট সম্পর্কে সংগঠনটির সভাপতি মোঃ নাইমুর রহমান বলেন, ” বাংলাদেশ হিউম্যান হেল্পিং সোসাইটি” বিগত সময়ের মতো বর্তমানেও সর্বদা মানুষের পাশে থাকার জন্য বিভিন্ন প্রজেক্ট বাস্তবায়ন করে আসছে। তবে করোনাকালীন সময়ে আমরা এই ইভেন্টের মাধ্যমে ব্যতিক্রম উপায়ে মানব সেবার উদ্যোগ নিয়েছি। ইনশাআল্লাহ ভবিষ্যতে আমাদের এইরকম বিভিন্ন কর্মসূচি বাস্তবায়নের লক্ষ্যে নিজেদের নিয়োজিত রাখবো।”

সৃজনশীলতায় বিজয় ইভেন্টের পরিচালক ও সংগঠনটির সহ-সভাপতি রাফাতুল ইসলাম বলেন,” আমরা এই প্রথম বারের মতো অনলাইন সৃজনশীল মেধা অন্বেষণ বিষয়ক এই ইভেন্টটি শুরু করি। এতে বাংলাদেশের প্রায় প্রতিটি জেলা থেকে আমরা সাড়া পেয়েছি। পরবর্তীতে আমরা আরো বড় পরিসরে ইভেন্টের পরিকল্পনা করার প্রত্যয়ে এগিয়ে যাবো ইনশাআল্লাহ।”

সৃজনশীলতায় বিজয় ইভেন্টে প্রত্যেক অংশগ্রহণকারীকে প্রেরণ করা হয়েছে সম্মাননা সার্টিফিকেট এবং বিজয়ীদের জন্য প্রেরণ করা হয়েছে সম্মাননা ক্রেস্ট ও সার্টিফিকেট। উক্ত ইভেন্টের স্পন্সর হিসেবে ছিলেন ক্যাপ্টেন ল্যুব এবং এফ.ডি. টেক্সটাইল।

প্রসঙ্গত, উক্ত ইভেন্টে রেজিষ্ট্রেশনকারীদের প্রেরিত অর্থ দিয়ে গত ০৫ জানুয়ারি কম্বল বিতরণ করে সংগঠনটি। আগামী ০৮,০৯ ও ১০ জানুয়ারি পর্যায়ক্রমে ভোলার চরফ্যাশন, কুড়িগ্রাম সদর ও ঠাকুরগাঁও জেলায় কম্বল বিতরণের পরিকল্পনা রয়েছে তাদের।

আপনার মতামত লিখুন :