ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় মায়ের সাথে অভিমান করে প্রতিবন্ধী মেয়ের আত্মহত্যা

এম মনসুর আলী, ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  10:51 PM, 03 January 2021

Share

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার জেলা শহরে মায়ের সাথে অভিমান করে গলায় ফাঁস লাগিয়ে রুপা আক্তার(১৪) নামের এক মানসিক প্রতিবন্ধী মেয়ে আত্মহত্যা করেছে।

আজ রবিবার(৩রা জানুয়ারি) বিকেল সাড়ে ৩টার দিকে ঘরের সিলিং ফ্যানের সাথে ওড়না পিছিয়ে আত্মহত্যার ঘটনা ঘটে।

রুপা আক্তার ব্রাহ্মণবাড়িয়া পৌরসভার পশ্চিম শেরপুর মানিক মিয়ার মেয়ে৷ জন্ম থেকে রুপা মানসিক ভাবে অসুস্থ ছিল।

রুপার চাচা বাদল মিয়া জানান, গত শনিবার
রুপার নানা হেলু মিয়া বার্ধক্যজনিত কারনে মৃত্যুবরণ করেন। আজকে দুপুর আড়াইটার দিকে রুপার মা রানু বেগম তার বাবা মৃত হেলু মিয়ার বাড়িতে সবাইকে নিয়ে কোরআন খতম দিতে গেলে রুপাকে না নিয়ে যাওয়া, রুপা তার মায়ের সাথে অভিমান করে সিলিংয়ের সাথে ওড়না পিছিয়ে গলায় ফাঁসিতে ঝুলে আত্নহত্যা করেন।

এদিকে পিতা ও মেয়ের মৃত্যুতে রানু বেগমের পরিবারের শোকের মাতব বইছে। আগের দিন তার বাবার মৃত্যু আজকে তার প্রতিবন্ধী মেয়ের মৃত্যু কেউ তার কান্না থামাতে পারছেন না।

সদর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা(ওসি) আব্দুর রহিম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, মায়ের সাথে অভিমান করে ফাঁসিতে ঝুলে আত্মহত্যা করেছেন বলে জানতে পারি। লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। এব্যাপারে একটি অপমৃত্যুর মামলা করা হয়েছে।

আপনার মতামত লিখুন :