চাঁদা না দেওয়ায় বাড়ি ভাংচুরসহ স্ত্রী কন্যাকে মারধর করার অভিযোগ

সাদ্দাম হোসেন, সাভার প্রতিনিধি
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  10:47 PM, 26 December 2020

Share

ঢাকার উপকন্ঠে সাভার বিরুলিয়ায় চাঁদার টাকা না দেওয়ায় দুই ব্যবসায়ীর বাড়ি ভাংচুরসহ তাদের স্ত্রী কন্যাকে মারধর করার অভিযোগ পাওয়া গেছে ওই এলাকার মাদক ব্যবসায়ী ও মাদক সেবনকারী সাইদুর রহমান পিন্টুর বিরুদ্ধে। এঘটনায় ব্যবসায়ী মাহবুবুর রহমান বাদী হয়ে সাভার মডেল থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেছে। অভিযোগের ভিত্তিতে পুলিশ ঘটনাস্থলে পরিদর্শন করেছে। এছাড়াও এ মাদক ব্যবসায়ীর হাত থেকে রেহায় পাইনি তার আপন ছোট ভাই মো: ইস্তাকুর রহমান। মাদককের টাকার জন্য তার বাড়ি ঘরে হামলা চালিয়ে ভাংচুরসহ তার পরিবারকেও মারধর করেছে এই মাদক ব্যবসায়ী। এঘটনায় তিনিও বাদি হয়ে সাভার মডেল থানায় অভিযোগ করেছেন।

ব্যবসায়ী মাহবুবুর রহমান ও ইস্তাকুর রহমানের অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, সাভার উপজেলার বিরুলিয়া ইউনিয়নে সামাইর গ্রামে চিহ্নিত মাদক ব্যবসায়ী সাইদুর রহমান পিন্টু মাদক সেবন করার জন্য তাদের কাজ থেকে প্রতিনিয়ত জোড় পূর্বক চাঁদা দাবি করে আসছিলেন। এক পর্যায়ে গত ১৯ ডিসেম্বর বিকালে জমি ব্যবসায়ী মাহবুবুর রহমানের কাছ থেকে ২০ হাজার টাকা চাঁদার টাকা দাবী করে। এসময় তিনি টাকা দিতে অপরাগতা প্রকাশ করলে মাদক ব্যবসায় সাইদুর রহমান পিন্টু ক্ষিপ্ত হয়ে মাহবুবুরের বাড়িতে গিয়ে ভাংচুর করে।

সেই সাথে তার স্ত্রী নিপা আক্তার ও মেয়ে ফাতেমাকে মারধর করে। পরে মাহবুব ওই দিন অভিযোগ দায়েরের জন্য সাভার মডেল থানায় গেলে এসময় ওই সন্ত্রাসী পূর্নরায় তার বাসায় রামদা নিয়ে হামলা চালায়। পরে তার স্ত্রী নিপা আক্তার ৯৯৯ কল দিয়ে অভিযোগ করলে তাতক্ষনিক ঘটনাস্থেল পুলিশ পৌছে তাদের রক্ষা করে। পরে স্থানীয়রা বিষয়টি বিচার শালিশের মাধ্যমে মিমাংশা করে দেয়।

গতকাল শুক্রবার বিকালে ওই মাদক ব্যবসায়ী আবারও ১ লাখ টাকা চাঁদা দাবি করে ওই ব্যবসায়ী মাহবুবুর রহমানের বাসায় হামলা চালায়। এঅবস্থায় ব্যবসায়ী মাহবুবুর রহমান ও তার পরিবার নিয়ে নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন। এছাড়াও একই ঘটনায় মাদক ব্যবসায়ী পিন্টু তার আপন ছোট ভাই ইস্তাকুর রহমানের সাথে ঘটিয়েছেন। এ জন্য ইস্তাকুর রহমানের স্ত্রী নিরাপত্তাহীনতার কারণে তার বাবর বাড়িতে আশ্রয় নিয়েছেন।

এব্যপারে ভুক্তভোগী ইস্তাকুর রহমান জানান, তার আপন বড় ভাই সাইদুর রহমান পিন্টু তার পৈত্রিক সম্পত্তি বিক্রয় করে মাদক সেবন ও জুয়া খেলে সব শেষ করেছেন। তিনি সব সময় নেশায় আসক্ত থাকেন। পুলিশ দেখেও না দেখার ভান করে। তার বিরুদ্ধে কোন ব্যবস্থা নেয় না। তিনি সব সময় আমাদের কাছ থেকে চাঁদা দাবী করে এবং আমাদের বাড়ি দখল করার চেষ্টা করে। আমরা বাধা দিতে গেলে আমাদের মারধর ও বাড়ি ভাংচুর করে। এছাড়া মিথ্যা অভিযোগ দিয়ে উল্টো পুলিশের মাধ্যমে আমাদেরকে বিভিন্ন ভাবে হয়রানি করে।

এদিকে স্থানীয়রা জানিয়েছেন, সাইদুর রহমান পিন্টু প্রায় সময়ই মাদক সেবন করে গালিগালাজ করে। এতে কেউ প্রতিবাদ করলেই তার সাথে দন্দে জড়িয়ে পরেন। এসব কর্মকান্ডে অতিষ্ট হয়ে উঠেছেন তার প্রতিবেশীরা তারাএবিষয়ে দ্রæত ব্যবস্থা নেয়ার জন্য প্রশাসনের দৃষ্টি আকর্ষণ করেন।

 

আপনার মতামত লিখুন :