মাস্ক ব্যবহারে কঠোর অবস্থানে বরিশাল জেলা প্রশাসন

বিশেষ প্রতিনিধি।
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  09:13 PM, 24 November 2020

Share

মাস্ক ব্যবহারে কঠোর হয়েছে বরিশাল জেলা প্রশাসন। করোনার দ্বিতীয় ধাপ মোকাবেলায় ইতোমধ্যে নানা প্রস্তুতি নেয়া হয়েছে জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে। করোনা প্রতিরোধে প্রধান হাতিয়ার মাস্ক ব্যবহারে সচেতনতার পাশপাশি ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করে জরিমানাও করা হচ্ছে।

মঙ্গলবার (২৪ নভেম্বর) জেলার সদর, বানরিপাড়া, উজিরপুর, মেহেন্দিগঞ্জ, বাবুগঞ্জ, বাকেরগঞ্জ, হিজলা, মুলাদী, গৌরনদী এবং আগৈলঝাড়ায় ভ্র্যামমান আদালত পরিচালনা করে মাস্ক ব্যবহারে সচেতনতা বৃদ্ধিসহ ১২৬ ব্যক্তিকে জরিমানা করা হয়। বাধ্যতামূলকভাবে হাটে-বাজারে ও জনসমাগম হয় এমন স্থানে মাস্ক ব্যবহারের আহ্বান জানানো হয়।

বরিশাল সদরে এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট জনাব মোঃ আলী সুজা, মোঃ আতাউর রাব্বী এবং শরীফ মোঃ হেলাল উদ্দীন এর নেতৃত্বে মহানগরীর বিভিন্ন স্থানে অভিযান পরিচালনা করেন। অভিযানকালে বাজারে আগত লোকদের মাস্ক ব্যবহারে উৎসাহিতকরণ ও সামাজিক দূরত্ব রেখে চলাফেরা এবং মাস্ক ব্যতিত কেউ যাতে কোন প্রকার সেবা না পায় সেটি নিশ্চিত করার জন্য বিভিন্ন দোকান মালিক ও ব্যবসায়ীদের নির্দেশনা প্রদান করা হয়। পাশাপাশি জেলা প্রশাসন কর্তৃক প্রচারপত্র নো-মাস্ক নো-সার্ভিস সংম্বলিত ফ্যাস্টুন এবং ফ্রি মাস্ক বিতরন করা হয়। অধিকন্তু মাস্ক না পড়ে ঘোরাফেরা করার মাধ্যমে স্বাস্থ্যবিধি লংঘন করায় ৬২ জন পথচারীকে অর্থদণ্ড প্রদান করা হয়।

বাবুগঞ্জে উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট মোঃ আমীনুল ইসলাম এর নেতৃত্বে বাটাজোড়-শিলন্দিয়া সড়কে চলাচলকারী বিভিন্ন যানবাহনের চালক ও যাত্রীদের মাস্ক পরিধান নিশ্চিত করা, স্বাস্থ্যবিধি পরিপালন করার লক্ষ্যে সচেতন করা হয় এবং মাস্ক পরিধান না করায় ১০ব্যক্তিকে ৩১০০ টাকা অর্থদণ্ড করা হয়।

আগৈলঝাড়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট মোঃ আবুল হাশেম এর নেতৃত্বে বাজারে অভিযান পরিচালনা করা হয়। এ সময় স্বাস্থ্যবিধি অমান্য করায় ৬ জনকে ৬ টি মামলায় ১৪০০ টাকা অর্থদন্ড প্রদান করা হয়।

মেহেন্দিগঞ্জে উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট জনাব পিজুস চন্দ্র দে এর নেতৃত্বে মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করা হয়। অভিযান পরিচালনাকালে স্বাস্থ্যবিধি না মানায় এ সময় ০৭ জন ব্যক্তিকে মোট ১৪০০ টাকা অর্থদণ্ড দেওয়া হয়।

হিজলা উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট জনাব বকুল চন্দ্র কবিরাজ এর নেতৃত্ব মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করা হয়। উক্ত অভিযানে ১০ জনকে ২০০০ টাকা অর্থ দন্ড প্রদান করা হয়।

বাকেরগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার এবং নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মাধবী রায় ও এসি ল্যান্ড বাকেরগঞ্জ ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো তরিকুল ইসলাম এর নেতৃত্বে অভিযান পরিচালিত হয়। অভিযানকালে মাস্ক না পরার জন্য ০৬ জনকে ১২০০ টাকা অর্থদণ্ড প্রদান করেন, মানুষকে মাস্ক ব্যবহার করতে সচেতন করেন এবং একইসাথে মাস্ক বিতরণ করেন।

গৌরনদী সহকারী কমিশনার(ভূমি) ও এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট ফারিহা তানজিন এর নেতৃত্ব মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করা হয়। উক্ত অভিযানে ০৩ জনকে ৬০০ টাকা অর্থ দন্ড প্রদান করা হয়। পাশাপাশি জনগণের মাঝে ফ্রি মাস্ক বিতরণ করা হয়।

উজিরপুরের হারতা বাজারে সহকারী কমিশনার(ভূমি) ও এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট জয়দেব চক্রবর্তী এর নেতৃত্বে মাস্ক পরিধানের উপর সচেতনতামূলক অভিযান ও মোবাইল কোর্ট পরিচালিত হয়। মো মোস্তফা শেখ ও শিপন মৃধাকে মোট ০৩ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। জনগণের মাঝে মাস্ক বিতরণ করা হয়।

বানারীপাড়ায় সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট মফিজুর রহমানএর নেতৃত্বে মাস্ক পরিধানের উপর সচেতনতামূলক অভিযান ও মোবাইল কোর্ট পরিচালিত হয়। উক্ত অভিযানে ১৯ জনকে ২৩৫০ টাকা অর্থ দন্ড প্রদান করা হয়।

জেলা প্রশাসক এস এম অজিয়র রহমান বলেন, করোনায় দ্বিতীয় ধাপ শুরু হয়েছে। করোনা প্রতিরোধে জেলা প্রশাসন শুরু থেকে সচেতনতামূলক কার্যক্রম পরিচালনা করে আসছে। জনসাধারণ যেন মাস্ক পরিধান করে সেলক্ষ্যে আমরা কঠোর ব্যবস্থা নেবো। সেজন্য ভ্রাম্যমান আদালতের মাধ্যমে নিয়মিত ভিত্তিতে জরিমানাসহ আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

আপনার মতামত লিখুন :