যা সত্য ও সুন্দর তাই তিনি করেন

এম মনসুর আলী, ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  12:01 PM, 24 November 2020

Share

সরাইল উপজেলার সহকারী কমিশনার (ভূমি) ফারজানা প্রিয়াংকা একটা সাহসের নাম। যা সত্য ও সুন্দর তাই তিনি করেন। তাঁর সাহসী কর্মকাণ্ডে মুগ্ধ হয়ে সুধী জনের অনেকেই তাঁকে ‘সাহসী কন্যা’ বলেই আখ্যা দিয়েছেন। বর্তমানে তিনি সরাইল উপজেলা ভারপ্রাপ্ত নির্বাহী কর্মকর্তা হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন।

ফারজানা প্রিয়াংকা সরাইল উপজেলায় যোগদান করার পর প্রভাবশালীদের দ্বারা দখলকৃত অনেক সরকারি খাল ও জায়গা উদ্ধার করেন, যা পূর্বেকার দায়িত্বপ্রাপ্ত কোন সহকারী কমিশনার (ভূমি) প্রভাবশালীদের ভয়ে কিংবা সম্পর্ক নষ্ট হওয়ার আশংকায় করেননি।

উপজেলার অরুয়াইল ইউনিয়নে অবস্থিত এক প্রভাবশালীর দীর্ঘদিনের দখল থাকা পরিত্যাক্ত কৃষি অফিস উদ্ধার করেন ফারজানা প্রিয়াংকা । এছাড়াও জন সুবিধার্থে উপজেলার বিভিন্ন বাজার ও সিএনজি স্টেশনের ফুটপাত দখল মুক্ত করেন তিনি। দখলমুক্ত অভিযানে এসে তিনি কোন সরকার দলীয় প্রভাবশালী নেতার,সাংবাদিকের কিংবা কোন উর্ধতন কর্মকর্তার আব্দার বা অনুরোধ রক্ষা করেননি। যা সত্য সঠিক তাই তিনি করেন। এজন্য তিনি অনেক নেতা ও প্রভাবশালীর চক্ষুশূল হয়েছেন।

গত ইলিশ ধরা নিষিদ্ধ মৌসুমে ‘মা ইলিশ’ নিধন বন্ধ করার জন্য জীবনের ঝুঁকি নিয়ে অন্ধকার রাতে মেঘনা নদীতে অভিযান পরিচালনা করেন ফারজানা প্রিয়াংকা। যা পূর্বের কোন নারী কর্মকর্তা এমন দুঃসাহসীক অভিযান পরিচালনা করেননি। তাই সরাইলের সর্বশ্রেনির মানুষের কাছে তিনি ‘ব্রেভ ডটার’ বা সাহসী কন্যা হিসেবে পরিচিত।

তিনি শতভাগ চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন সম্পূর্ণরূপে প্রভাবশালীদের হাত থেকে সরাইল উপজেলার সরকারী জায়গা,রাস্তা- ঘাট ও খাল দখল মুক্ত করতে। বাংলাদেশের প্রতিটি উপজেলার শ্রদ্ধেয় সহকারী ভূমি কমিশনার সরকারী জায়গা দখলমুক্ত করুক এমনটাই আমাদের চাওয়া ও প্রত্যাশা। তাহলেই আমরা একদিন সোনার বাংলাদেশ পাবো।

ফারজানা প্রিয়াংকা তাঁর কাজের স্বীকৃতি স্বরুপ এ বছর ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার শ্রেষ্ঠ উপজেলা সহকারী কমিশনার(ভূমি) নির্বাচিত হয়েছেন। এছাড়াও ‘করোনাকালীন সময়ে জনকল্যাণ ও জনপ্রশাসনে অনন্য অবদানের জন্য পুবের আলো’র পাঠক ফোরাম আলোর সারথি সংগঠন তাঁকে সংবর্ধনা ও সম্মাননা প্রদান করেন।

আপনার মতামত লিখুন :