You are here
Home > বাংলাদেশ > চুরি করে নিয়ে মাথায় আঘাত করে হত্যা

চুরি করে নিয়ে মাথায় আঘাত করে হত্যা

Share

মোরেলগঞ্জে গভীর রাতে ঘুমন্ত মা-বাবার পাশ থেকে ১৭ দিন বয়সী সোহানাকে চুরি করে নিয়ে মাথায় আঘাত করে হত্যা করা হয়েছে।বাগেরহাট সদর হাসপাতালে ময়নাতদন্ত শেষে বুধবার (১৮ নভেম্বর) বিকেলে এ তথ্য জানিয়েছেন বাগেরহাটের সিভিল সার্জন ডা. কে এম হুমায়ুন কবির।

তিনি বলেন, মোরেলগঞ্জ উপজেলায় ১৭ দিন বয়সী যে বাচ্চাটি খোয়া গিয়েছিল, আজ দুপুরে সেই শিশুটির ময়নাতদন্ত সম্পন্ন হয়েছে। ময়নাতদন্তে আমরা দেখেছি, শিশুটির মাথায় আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। আমরা ধারণা করছি, মাথায় আঘাত করায় মস্তিষ্কে রক্তক্ষরণের ফলে শিশুটির মৃত্যু হয়েছে। ময়নাতদন্তের সিদ্ধান্ত হচ্ছে, মাথায় আঘাতের কারণে মস্তিষ্কে রক্তক্ষরণ হয়ে শিশুটি মারা গেছে। পুলিশের এক কর্মকর্তা জানান, শিশুটিকে হত্যা করে গুম করে রেখে চুরির ঘটনা সাজিয়েছিলেন পরিবারের লোকেরা। অচিরেই হত্যার কারণ ও হত্যাকারীকে শনাক্ত করা হবে।

রোববার (১৫ নভেম্বর) রাতে মোরেলগঞ্জ উপজেলার গাবতলা গ্রামে বাবা সুজন খান ও মা শান্তা আক্তারের সঙ্গে ঘুমিয়ে ছিল ১৭ দিন বয়সী সোহানা। মধ্য রাতে ঘুম ভেঙে তারা দেখেন যে শিশুটি তাদের পাশে নেই। সোমবার (১৬ নভেম্বর) ভোর থেকে পুলিশের একাধিক টিম শিশুটিকে উদ্ধার অভিযান শুরু করলেও কোনো কূল-কিনারা পাচ্ছিল না পুলিশ। সোমবার (১৬ নভেম্বর) রাতে অজ্ঞাতনামা ব্যক্তিদের আসামি করে মোরেলগঞ্জ থানায় মামলা করেন শিশুটির দাদা আলী হোসেন খান। বুধবার ভোরে নামাজের পর নিজ ঘরের সামনের পুকুরে নাতির মরদেহ ভাসতে দেখেন আলী হোসেন। পরে পুলিশ শিশুটির মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য বাগেরহাট সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠায়।

 

Top