নেত্রকোনায় ভুল চিকিৎসায় ১০ মাসের এক শিশুর মৃত্যু

অনলাইন ডেস্ক।
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  09:27 PM, 18 November 2020

Share
নেত্রকোনার পূর্বধলায় ভুল চিকিৎসায় জোনাকি নামে ১০ মাসের এক শিশুর মৃত্যু হয়েছে। স্বজনদের দাবি, চিকিৎসক ইনজেকশন দিতেই খিঁচুনি শুরু হয় শিশুটির। কাঁপতে কাঁপতে তাৎক্ষণিক সে মারা যায়।
মঙ্গলবার সন্ধ্যায় পূর্বধলা উপজেলা সদরের হাসপাতাল গেট সংলগ্ন মা ডায়াগনস্টিক সেন্টারে এ ঘটনা ঘটে। শিশু জোনাকি সদর ইউনিয়নের ভিতরগাঁওয়ের জাহাঙ্গীরের মেয়ে।
এ ঘটনায় উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের উপ-সহকারী কমিউনিটি মেডিকেল অফিসার ডা. গোলাম মোস্তফাকে হেফাজতে নিয়েছে পুলিশ।
জানা গেছে, জোনাকির মাথায় পাঁচ মাস আগে একটি টিউমার দেখা দেয়। দিনদিন সেটি বড় হচ্ছিল। মঙ্গলবার বিকেলে টিউমার অপারেশনের জন্য তাকে মা ডায়াগনস্টিক সেন্টারে নিয়ে যান বাবা জাহাঙ্গীর। সন্ধ্যার দিকে ডা. গোলাম মোস্তফা শিশুটির মাথায় লোকাল অ্যানেসথেসিয়া দেন। এতে সঙ্গে সঙ্গে খিঁচুনি দিয়ে নিথর হয়ে পড়ে জোনাকির দেহ। তাৎক্ষণিক উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।
জোনাকির বাবা জাহাঙ্গীর বলেন, ডা. গোলাম মোস্তফা আমার মেয়ের টিউমার অপারেশনের জন্য এক হাজার ৫০০ টাকায় চুক্তি করেন। এরপর ইনজেকশন দিতেই কাঁপতে কাঁপতে আমার মেয়ে মারা যায়। আমি ওই ডাক্তারের বিচার চাই।
উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিকিৎসক ওয়াহিদুর রহমান মামুন বলেন, শিশুটিকে লোকাল অ্যানেসথেসিয়া দেয়ার পর খিঁচুনি শুরু হয়। পরে ডা. গোলাম মোস্তফা তাকে হাসপাতালের দ্বিতীয় তলায় নার্স রুমে নিয়ে অক্সিজেন দেন। তাৎক্ষণিক আমি জরুরি বিভাগ থেকে দ্বিতীয় তলায় গিয়ে শিশুটিকে মৃত দেখতে পাই।
পূর্বধলা থানার ওসি মোহাম্মদ তাওহীদুর রহমান জানান, এরইমধ্যে অভিযুক্ত ডা. গোলাম মোস্তফাকে হেফাজতে নেয়া হয়েছে। নিহতের পরিবার লিখিত অভিযোগ করলে আইনি ব্যবস্থা নেয়া হবে।

আপনার মতামত লিখুন :