মাদ্রাসা ছাত্রী ধর্ষণ মামলার রায় ৫ নভেম্বর।

তামান্না আলম তন্বী, বাগেরহাট প্রতিনিধি
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  05:45 PM, 02 November 2020

Share

বাগেরহাটের শরণখোলায় পঞ্চম শ্রেণির এক মাদ্রাসা ছাত্রী ধর্ষণ মামলার রায় ঘোষণার দিন আগামী ৫ নভেম্বর ঠিক করেছে আদালত। বাগেরহাট নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-২ এর বিচারক জেলা ও দায়রা জজ মো. নূরে আলম রোববার এ দিন ঠিক করেন।

মামলার একমাত্র আসামি ইলিয়াছ জোমাদ্দার (৪৮) বাগেরহাটের শরণখোলা উপজেলার উত্তর খোন্তাকাটা রাশিদিয়া স্বতন্ত্র এবতেদায়ী মাদ্রাসার সুপার এবং একই উপজেলার পূর্ব রাজাপুর গ্রামের আব্দুল গফফার জোমাদ্দারের ছেলে।

মামলার বরাতে রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী বাগেরহাট নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিশেষ সহকারী কৌসুলি (এপিপি) রনজিৎ কুমার মণ্ডল জানান, ২০১৯ সালের ৮ অগাস্ট সকালে পঞ্চম শ্রেণীর চার ছাত্রী মাদ্রাসা সুপারের কাছে আরবি শিক্ষা নিতে যায়। পরে পৌনে ৮টার দিকে মাদ্রাসার সুপার ইলিয়াছ জোমাদ্দার এক ছাত্রীকে রেখে বাকি নয়জনকে বাড়িতে পাঠিয়ে দেন এবং ওই ছাত্রীকে মাদ্রাসার লাইব্রেরিতে নিয়ে ধর্ষণ করে।

এই ঘটনা কাউকে না জানাতে হুমকি দিয়ে মেয়েটিকে বাড়িতে পাঠিয়ে দেন ইলিয়াছ। পরে মেয়েটি মাদ্রাসা থেকে বেরিয়ে বাড়িতে যেয়ে তার মাকে ঘটনা খুলে বলে। পরে সে অসুস্থ হয়ে পড়লে স্থানীয় গ্রাম্য চিকিৎসকের কাছে চিকিৎসা দেয়া হয়।

এ ঘটনার ১১ দিন পর ১৯ অগাস্ট মেয়েটির বাবা বাদী হয়ে শরণখোলা থানায় মাদ্রাসা সুপারের বিরুদ্ধে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে একটি মামলা করেন। পরে মামলাটির তদন্ত ভার পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশনের (পিবিআই) কাছে হস্তান্তর করা হয়।

রনজিৎ বলেন, ঘটনার প্রায় দুই মাস পরে ওই বছরের ১৭ অক্টোবর জেলার ফকিরহাট উপজেলার কাটাখালি এলাকা থেকে ইলিয়াছ জোমাদ্দারকে গ্রেপ্তার করা হয়।পরে ইলিয়াছ আদালতে জবানবন্দিও দেন।

তদন্ত শেষে পুলিশ ১৩ নভেম্বর ইলিয়াছের বিরুদ্ধে অভিযোগ দাখিল করলে এ মামলার বিচারকাজ শুরু করে আদালত।

 

আপনার মতামত লিখুন :