নারায়ণগঞ্জে মাদ্রাসাছাত্রীকে গনধর্ষণের অভিযোগে গ্রেফতার ৩।

বিশেষ প্রতিনিধি।
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  04:21 PM, 16 October 2020

Share

মিথ্যে পরিচয় দিয়ে ফোনে আলাপচারিতার এক পর্যায়ে দেখা করার কথা বলে নির্জন স্থানে নিয়ে গেলে আসল পরিচয় জানতে পারলে ফিরে আসার পথে গনধর্ষণের শিকার হন এক কিশোরী। এমনটাই অভিযোগ এনেছে নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজারে এক মাদ্রাসাছাত্রী। উক্ত ঘটনার বিচারের দাবিতে মাদ্রাসাছাত্রীর মা নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজার থানায় তিনজনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেছেন। এর পরপরই আড়াইহাজার থানার পুলিশের একটি টিম অভিযুক্ত তিনজনকে গ্রেফতার করেন।

গ্রেফতারকৃত তিন আসামিরা হলেন, উপজেলার ব্রাহ্মন্দী ইউনিয়নের নজরুল ইসলাম (২৫), তাঁর বড় ভাই বাদল (৩৭) ও একই এলাকার মুছা (২৪)।

মামলার এজাহার ও শিক্ষার্থীর পরিবার সূত্রে জানা যায়, ধর্ষনের শিকার ঐ ছাত্রী স্থানীয় একটি মাদ্রাসার অষ্টম শ্রেণির ওই ছাত্রী। সাগর নামে পরিচয় দিয়ে একটি ছেলে ঐ মেয়ের সাথে ফোনে কথা বলতো। মাদ্রাসায় যাওয়ার পথে দেখা করার কথা বলে সাগর ও মাদ্রাসা ছাত্রীকে একটি নির্জন স্থানে নিয়ে যায়। সেখানে পৌঁছে মেয়েটি সাগরের আসল পরিচয় জানতে পারলে চলে আসার চেষ্টা করে। সাগরের আসল নাম নজরুল। ঐ ছাত্রী চলে আসার চেষ্টা করলে নজরুল মেয়েটিকে ধর্ষণের চেষ্টা করে। এক পর্যায়ে ঘটনাস্থলে নজরুলের বড় ভাই বাদল ও নজরুলের বন্ধু মুছা উপস্থিত হন। তারা মাদ্রাসা ছাত্রীকে বাসায় দিয়ে আসবেন এ কথা বলে নজরুলকে পাঠিয়ে দেন। পরবর্তীতে বাদল এবং মুছা মিলে মেয়েটিকে ধর্ষন করে ফেলে রেখে চলে যায়। পরবর্তীতে মেয়েটি পরিবারের সাথে যোগাযোগ করলে পরিবারের সদস্যরা ঘটনাস্থল থেকে মেয়েটিকে উদ্ধার করে।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা আড়াইহাজার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নজরুল ইসলাম জানান, শিক্ষার্থীর মা বাদী হয়ে মামলা করেছেন। অভিযুক্ত তিন আসামিকে গ্রেফতার করা হয়েছে। ওই ছাত্রীকে সকালে স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য নারায়ণগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হবে।

আপনার মতামত লিখুন :