ছাত্র-শ্রমিক নেতা থেকে জাতীয় নেতা, নবনির্বাচিত সাংসদ নুরুজ্জামান বিশ্বাস।

কে.এম. ইয়ামিনুল হাসান, পাবনা প্রতিনিধি
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  02:18 PM, 12 October 2020

Share

গত ২৬ সেপ্টেম্বরে অনুষ্ঠিত হয় পাবনা-৪ উপনির্বাচন। উপনির্বাচনে নৌকা প্রতিক নিয়ে নির্বাচিত হন পাবনা জেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি ও ঈশ্বরদী উপজেলার একাধিকবার নির্বাচিত চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা নুরুজ্জামান বিশ্বাস।তিনি ছাত্রলীগের রাজনীতি, শ্রমিক লীগের রাজনীতি করে আজ পরিণত হয়েছেন জাতীয় নেতায়।

বীর মুক্তিযোদ্ধা নুরুজ্জামান বিশ্বাসের রাজনৈতিক হাতেখড়ি ও কর্মকান্ড শুরু হয় ১৯৬১ ইং সনে।

ঈশ্বরদী উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান হন ১৯৯০ সনে। এরপর আবারও ঈশ্বরদী উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান হন ২০০৯ সনে। পরবর্তীতে ২০১৯ সালে নৌকা প্রতিক নিয়ে তৃতীয়বারের মতো উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান হন বীর মুক্তিযোদ্ধা নুরুজ্জামান বিশ্বাস।

বাংলাদেশ ছাত্রলীগ এর রাজনীতি করেন ছাত্র বয়সে।ছিলেন পাবনা জেলা ছাত্রলীগের ১ নং সহ-সভাপতি। প্রতিষ্ঠাকালীন সাধারণ সম্পাদক ছিলেন ঈশ্বরদী উপজেলা ছাত্রলীগের।

এছাড়া ঈশ্বরদী কলেজ ছাত্রলীগের সভাপতি ও নির্বাচিত জিএস ছিলেন ঈশ্বরদী কলেজ সংসদের।তার আগে এজিএস হিসেবেও দায়িত্ব পালন করেছেন বর্তমান ঈশ্বরদী-আটঘরিয়ার এই অভিভাবক।

ছাত্রলীগের পাশাপাশি শ্রমিকদের অধিকার রক্ষায়ও এগিয়ে ছিলেন নুরুজ্জামান বিশ্বাস।
জাতীয় শ্রমিকলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য ছিলেন তিনি। এছাড়া বাংলাদেশ তাতশিল্প শ্রমিকলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক ছিলেন তিনি।

পাবনা জেলা শ্রমিকলীগের ১ নং সহ-সভাপতি ও ঈশ্বরদী উপজেলা শ্রমিক লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সভাপতির দায়িত্ব পালন করেছেন তিনি।
আলহাজ্ব টেক্সটাইল মিলস এর সিবিএ এর নির্বাচিত সাধারণ সম্পাদক ও সভাপতি হিসেবেও দায়িত্ব পালন করেন তিনি।

বর্তমান পাবনা জেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি নুরুজ্জামান বিশ্বাস এর আগে পাবনা জেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ন-সাধারণ সম্পাদক ছিলেন।
ছিলেন ঈশ্বরদী উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক। দায়িত্ব পালন করেছেন ঈশ্বরদী উপজেলা আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও পাবনা জেলা আওয়ামীলীগের সদস্য হিসেবে।

১৯৬৫ সনে ২রা জানুয়ারি পাকিস্তানের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে তৎকালীন ঈশ্বরদী সাড়া মাড়োয়ারি উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে আইয়ুব খানের জনসভা নুরুজ্জামান বিশ্বাসের নেতৃত্বে ভেঙে দেয়া হয়। সেই থেকে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান তাকে অত্যন্ত স্নেহ করতেন ও বিশ্বাস করতেন। বীর মুক্তিযোদ্ধা নুরুজ্জামান বিশ্বাসের কপালে বহুবার স্নেহচুম্বন দিয়েছেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান।
পাবনা-৪ আসনের নবনির্বাচিত সাংসদ বীর মুক্তিযোদ্ধা নুরুজ্জামান বিশ্বাস জীবনে কোন নির্বাচনে পরাজিত হন নি।

আপনার মতামত লিখুন :