দেড় বছরের সন্তানের সামনে মাকে গনধর্ষন।

বিশেষ প্রতিনিধি।
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  10:38 AM, 12 October 2020

Share

কুড়িগ্রামের উলিপুরায় দেড় বছরের সন্তানের সামনে এক গৃহবধূকে ধর্ষণের অভিযোগে চারজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

গত শুক্রবার রাতে পাঁচজনের বিরুদ্ধে থানায় মামলা করেন ভুক্তভোগী ওই গৃহবধূ। ধর্ষনের অভিযোগে গ্রেফতারকৃত আসামীরা হলেন, উপজেলার তবকপুর ইউপির রাজারঘাট গ্রামের আবু বক্কর, তার সহযোগী একই এলাকার আবুল হোসেনের ছেলে মমিনুল ইসলাম, ফকর উদ্দিনের ছেলে সোবহান আলী লিটন ও সেফাত উল্লার ছেলে কায়সার আলী।

এ তথ্যের সত্যতা নিশ্চিত করেছেন উলিপুর থানার অফিসার ইনচার্জ রুহুল আমিন। শনিবার গ্রেপ্তারকৃত আসামীদের আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে বলে তিনি জানান।

ভুক্তভোগী গৃহবধূ মামলার এজাহারে উল্লেখ করেন, তিনি এক সন্তানের মা। প্রতিবেশী মোহাম্মদ আলীর ছেলে ব্যবসায়ী রবিউল ইসলাম স্বামীর অনুপস্থিতিতে তাদের বাড়িতে আসতেন এবং তাকে প্রেমের প্রস্তাব দিতেন। বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে রবিউল সম্পর্ক গড়ে তোলেন এ গৃহবধূর সঙ্গে। ২৫ সেপ্টেম্বর রাতে রবিউল তাকে নতুন করে বিয়ের আশ্বাস দিয়ে মোবাইল ফোনে ডেকে নেন। এরপর তিনি দেড় বছরের সন্তানকে নিয়ে উলিপুর বাজারে রবিউলের সঙ্গে দেখা করেন।

উলিপুর বাজারে যাওয়ার পর একটি অটোরিকশায় ওই গৃহবধূকে উপজেলার তবকপুর ইউপির রাজারঘাট গ্রামের আবু বক্করের ফাঁকা বাড়িতে নিয়ে যান রবিউল। সেখানে একটি ঘরে আটকে রেখে তাকে সারা রাত ধরে পালাক্রমে ধর্ষণ করে রবিউলের বন্ধু কায়ছার আলী, সোবহান আলী লিটন, মমিনুল ইসলাম। পরদিন সকালে ওই গৃহবধূকে ঘরের মধ্যে একা রেখে তারা পালিয়ে যান।

উলিপুর মডেল থানার ওসি রুহুল আমীন বলেন, শুক্রবার রাতে ওই গৃহবধূ মামলা করার পর চারজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। মামলার প্রধান আসামি রবিউলকেও গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে। এছাড়া গৃহবধূকে ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য কুড়িগ্রাম সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

আপনার মতামত লিখুন :