You are here
Home > বাংলাদেশ > ডাকাতির প্রতিবাদ করায় যুবককে কুপিয়ে জখম।

ডাকাতির প্রতিবাদ করায় যুবককে কুপিয়ে জখম।

Share

বাগেরহাটের মোরেলগঞ্জে ডাকাতির প্রতিবাদ ও মামলা করার সন্দেহে থানা থেকে ফেরার পথে মোঃ জিয়া বক্স নামের এক যুবককে কুপিয়ে ও পিটিয়ে হাত-পা ভেঙ্গে দিয়েছে দূর্বৃত্তরা। এ ঘটনায় হামলাকারীদের আটক করে বিচারের দাবিতে মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করছে এলাকাবাসী।

মঙ্গলবার (০৬ সেপ্টেম্বর) সকালে মোরেলগঞ্জ উপজেলার চিংড়াখালী বাজারে কয়েকশ এলাকাবাসী এই মানববন্ধনে অংশ নেন। এসময় স্থানীয় জনপ্রতিনিধিরাও মানববন্ধনে অংশ নিয়ে দ্রুত অপরাধীদের আটক করে বিচারের আওতায় আনার দাবি জানান।

মানববন্ধনে বক্তব্য দেন, চিংড়াখালী ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য মোঃ সোহেল খান, সংরক্ষিত নারী ইউপি সদস্য জাহানারা বেগম, সাবেক ইউপি সদস্য আলম তাজ বেগম, আওয়ামী লীগ নেতা আব্দুল মালেক হাওলাদার, আহত জিয়া বক্সের বাবা মোঃ মোশারেফ বক্স, ভাই কামরুল ইসলাম, জিয়ার মা, বোনসহ স্থানীয় অনেকে।

বক্তারা বলেন, সম্প্রতি হাওয়া বেগমের বাড়িতে ডাকাতির ঘটনা ঘটে। ২৯ সেপ্টেম্বর মামলা করার জন্য হাওয়া বেগমের সাথে মোরেলেগঞ্জ থানায় যায় দিন মজুর জিয়া বক্স। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে মঙ্গলবার (২৯ সেপ্টেম্বর) রাত সাড়ে ৮টার দিকে সালাম শিকদারের নির্দেশে রুমান শিকদার, সুমন শিকদার, রিপন বক্স, রাসেল হাওলাদার বাবুল হাওলাদার, মনির খানসহ কয়েকজন জিয়ার উপর হামলা করে। এসময় জিয়ার মাথাসহ শরীরের বিভিন্ন জায়গায় ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে এবং পিটিয়ে হাত-পা ভেঙ্গে দেয়। পরবর্তীতে জিয়াকে উদ্ধার করে প্রথমে বাগেরহাট সদর হাসপাতাল, পরবর্তীতে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। জিয়া এখন মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছে।এ ঘটনায় জিয়ার ভাই কামরুল ইসলাম বাদী হয়ে ৯ জনের নাম উল্লেখ করে মোরেলগঞ্জ থানায় মামলা দায়ের করলেও পুলিশ কেউ কে আটক করেনি।এ ঘটনায় স্থানীয়দের মাঝে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে। এলাকাবাসী নিরাপত্তা হীনতায় ভুগছে। এলাকায় শান্তি শৃঙ্খলা রক্ষার স্বার্থে অতিদ্রুত হামলাকারীদের আইনের আওতায় আনার দাবি জানান।

হাওয়া বেগম বলেন, আমার বাড়িতে ডাকাতি করতে আসে ১০-১২ জন ডাকাত। এদের মধ্যে আমি দুই জনকে চিনে ফেলি। আমার ভাইপো জিয়া বক্সকে নিয়ে থানায় মামলা করতে গেলে থানা পুলিশ আমার লিখিত অভিযোগ রেখে দেয়। আমরা রাতে বাড়িতে ফেরার পথে জিয়ার উপর হামলা করে ডাকাতরা। আমাকে সহযোগিতা করাই কাল হল জিয়ার এই বলে কান্নায় ভেঙ্গে পড়েন হাওয়া বেগম।

আহত জিয়া বক্সের বাবা মোঃ মোশারেফ বক্স বলেন, আমার ছেলেকে যারা কুপিয়ে আহত করেছে তারা এখনও এলাকায় ঘুরে বেড়াচ্ছে। আমাদের হুমকি ধামকি দিচ্ছে। আমার ছেলে এখন মৃত্যু শয্যায়। আমার ছেলের হামলাকারীদের বিচার চাই।

 

Top