You are here
Home > বাংলাদেশ > পায়ে হেঁটে ১৫০কিলোমিটার পথ পরিভ্রমণ ২০২০।

পায়ে হেঁটে ১৫০কিলোমিটার পথ পরিভ্রমণ ২০২০।

Share

বাংলাদেশের সর্ববৃহৎ ও সর্বোচ্চ সংখ্যক প্রেসিডেন্ট’স রোভার স্কাউট অ্যাওয়ার্ড অর্জনকারী ঐতিহ্যবাহী জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় রোভার স্কাউট গ্রুপের নিম্মোক্ত পাঁচ জন রোভার “কোভিড-১৯ স্বাস্থ্য বিধি মেনে” শ্রীমঙ্গল থেকে জাফলং পর্যন্ত ১৫০ কিলোমিটার পথ পায়ে হেঁটে পরিভ্রমণের উদ্দেশ্যে আগামী ২৭/০৯/২০২০ ইং তারিখ থেকে যাত্রা শুরু করবে। এ উপলক্ষে গত ২০ সেপ্টেম্বর ২০২০ইং তারিখে অত্র বিশ্বদ্যিালয়ের রোভার স্কাউট লিডার ও গ্রুপ সম্পাদক অধ্যাপক ড. মো. মনিরুজ্জামান খন্দকার পরিভ্রমণকারী দলের সাথে সৌজন্য সাক্ষাৎ ও উদ্ভোধন ঘোষণা করেন। এসময় উপস্থিত ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের সম্মানিত প্রক্টর জনাব ড. মোস্তফা কামাল, সহকারী প্রক্টর জনাব নিউটন হাওলাদার, সহকারী প্রক্টর জনাব ড.মোহাম্মদ রেজাউল হোসেইন, জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় রোভার স্কাউট গ্রপের রোভার স্কাউট লিডার ও সহকারী প্রক্টর জনাব কাজী ফারুক হোসেন, জ.বি রোভার ইন-কাউন্সিলের সভাপতি মো. আহসান হাবীব ও অন্যান্য রোভারবৃৃন্দ।

পরিভ্রমণকারী রোভারবৃন্দ হলেন:
১. রোভার মোঃ ইমতিয়াজ মাহমুদ (দলনেতা)
২. রোভার মোল্লা মামুন হাসান (সদস্য)
৩. রোভার আলমগীর হোসেন (সদস্য)
৪. রোভার আনোয়ার হোসেন (সদস্য)
৫. রোভার নাজমুল হাসান মুন্না (সহকারী দলনেতা)

উদ্ভোধন শেষে হিসাববিজ্ঞান ইউনিটের তিন রোভার স্কাউট মোঃ ইমতিয়াজ মাহমুদ, নাজমুল হাসান মুন্না ও মোল্লা মামুন হাসান এআইএস বিভাগের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. লিয়াকত হোসেন মাহমুদ ও বিজনেস স্টাডিজ অনুষদ এর সাবেক ডীন অধ্যাপক ড. মোঃ শওকত জাহাঙ্গীর স্যারের সাথে সৌজন্যে সাক্ষাৎ করেন।
রোভার স্কাউটস্ এর সর্বোচ্চ সম্মান “প্রেসিডেন্ট’স রোভার স্কাউট এ্যাওয়ার্ড” প্রাপ্তির লক্ষ্যে পরিভ্রমণ ব্যাজ অর্জন করার জন্য তারা এই পরিভ্রমণ সম্পন্ন করবে। পাঁচ দিনব্যাপি এই প্রোগ্রামে তারা শ্রীমঙ্গল থেকে রাজনগর, ফেঞ্চুগঞ্জ, সিলেট, জৈন্তাপুর হয়ে জাফলং পযর্ন্ত পায়ে হেঁটে পরিভ্রমণ করবে। এই সময় সমাজ সচেতনতামূলক পাঁচটি শ্লোগান তারা বহন করবে- “স্বাস্থ্য বিধি মেনে চলুন, কোভিড-১৯ মুক্ত থাকুন”; “মুজিববর্ষের আহবান, বেশি বেশি গাছ লাগান”; “স্বেচ্ছায় করবো রক্তদান, আমার রক্তে বাঁচবে প্রাণ”; “করবো মোরা ধূমপান-মাদক বর্জন, গড়বো মোরা সুখের জীবন”; “Scouts for creating a better world”। পরিভ্রমণ পথে তারা বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ দর্শনীয় স্থান, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, সরকারি ও বেসরকারি গুরুত্বপূর্ণ অফিস ইত্যাদি পরিদর্শন করবে এবং গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গের সাথে সৌজন্য সাক্ষাতে মিলিত হবে।

Top