নির্বাচন নিয়ে ডোনাল্ড ট্রাম্পের বক্তব্য

VOR News
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  09:21 PM, 06 November 2020

Spread the love

নির্বাচন নিয়ে ট্রাম্পের প্রথম অভিযোগ,
ট্রাম্প: “আমি দীর্ঘদিন ধরে মেইল-ইন ভোট দেওয়ার বিষয়ে কথা বলছিলাম। এটি সত্যই আমাদের সিস্টেমকে ধ্বংস করেছে। এটি একটি দুর্নীতিবাজ ব্যবস্থা এবং এটি মানুষকে দুর্নীতিগ্রস্থ করে তুলেছে।”
মিঃ ট্রাম্প নির্বাচন নিয়ে অনেক বেশী সতর্ক, নির্বাচনের প্রচার এর শুরু থেকেই তিনি মেইল-ইন ভোট নিয়ে টুইট করেছেন। তিনি ভোটের জালিয়াতি ও প্রতারণা মূলক নির্বাচন নিয়ে আশঙ্কা করেছেন। তবে যুক্তরাষ্ট্রের ইতিহাসে নির্বাচন কারচুপির অভিযোগ নেই বললেই চলে। যুক্তরাষ্ট্রের গণতন্ত্র মুক্ত ও স্বাধীন। যুক্তরাষ্ট্রের নির্বাচনী জালিয়াতি খুব বিরল – ব্রেনান সেন্টার ফর জাস্টিসের ২০১৭ সালের এক গবেষণা অনুসারে, এই হারটি 0.0009% এর চেয়ে কম।

প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প এর দ্বিতীয় অভিযোগ,
মিঃ ট্রাম্প: “তারা কোনও যাচাইকরণের ব্যবস্থা ছাড়াই লক্ষ লক্ষ অযাচিত ব্যালট পাঠিয়েছিল।”
সকল ভোটার ভোটের সুরক্ষার ব্যবস্থা রয়েছে – যেমন কর্তৃপক্ষ যাচাই করে যে কোনও ভোটারের নিবন্ধিত ঠিকানা থেকে ব্যালট এসেছে এবং খামে স্বাক্ষর প্রয়োজন। মেইল-ইন ভোট দেওয়া নতুন নয় – এটি বহু নির্বাচনের জন্য ব্যবহৃত হয়েছে।

তৃতীয় যে অভিযোগ রিপাবলিকান রা করছে,
মিঃ ট্রাম্প: “এই মেইল-ইন ব্যালটগুলি কীভাবে একতরফাভাবে হয় তা অবাক করা।”
রাষ্ট্রপতি ট্রাম্প বারবার ডাক ভোটের সম্প্রসারণের পরিকল্পনার সমালোচনা করে বলেছেন – আসল প্রমাণ ছাড়াই – এটি “প্রচণ্ড জালিয়াতির” জন্য উন্মুক্ত ছিল। তিনি রিপাবলিকান ভোটারদের মেইল-ইন ব্যালট ব্যবহার না করে এই দিনটিতে অংশ নেওয়ার আহ্বান জানান। ভোট গণনা থেকে প্রমাণ পাওয়া গেছে যে এটিই ঘটেছিল – ডেমোক্রেট এর ভোটাররা পোস্টের মাধ্যমে ভোট দেওয়ার পক্ষে ছিলেন এবং রিপাবলিকানরা ব্যক্তিগতভাবে সেদিন ভোট দিয়েছিল। গণনা শেষ হয়নি তবে পেনসিলভেনিয়ায়, রিপাবলিকানদের চেয়ে ডেমোক্রেট ভোটার এর কাছ থেকে প্রায় তিনগুণ বেশি মেইল-ইন ভোট পেয়েছে।

সুত্র বিবিসি

আপনার মতামত লিখুন :