‘পানি পড়া’ নামে অচেতন করে কিশোরীকে ধর্ষণের অভিযোগ।

বিশেষ প্রতিনিধি
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  07:14 PM, 24 October 2020

Spread the love

গাজীপুর জেলার শ্রীপুরের নয়নপুর এলাকায় পোশাক শ্রমিক এক কিশোরীকে (১৮) পানি পড়া খাইয়ে অচেতন করে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছ কবিরাজের বিরুদ্ধে। অভিযুক্ত কবিরাজের নাম মােঃ আবুল হাশেম (৫০)। ২৩ অক্টোবর শুক্রবার রাতে এ ঘটনায় ধর্ষণের শিকার ঐ কিশোরী শ্রীপুর মডেল থানায় কবিরাজের বিরুদ্ধে একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন।

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, শ্রীপুর উপজেলার নয়নপুর এলাকার নজরুল এর বাসার ভাড়াটিয়া মােঃ আবুল হাশেম (৫০) তিনি নিজেকে কবিরাজ বলে দাবি করে এবং কে বা কাহারা কিশোরীকে বান মেরেছে এর জন্য কিশোরীর বিয়ের প্রস্তাব আসে না এমন কথা বলে কবিরাজ কিশোরীকে ২০ অক্টোবর ১১.০০ ঘটিকায় তার ঘরে ডেকে নিয়ে এক গ্লাস পানি এনে দেয় এবং উক্ত পানি খাওয়ার জন্য বলে। সরল মনে কবিরাজের আনা পানি পান করে কিশোরী তার ঘরে চলে যায়। এর মধ্যে কিশোরীর শারীরিক অবস্থা কিছুটা খারাপ হয়ে যায়। কিছুক্ষন পর কবিরাজ কিশোরীর ঘর থেকে ডেকে তাকে বাহিরে এনে জোর করে পাশের খালি বাড়িতে কেউ না থাকায় কবিরাজ আবুল হাশেম কিশোরীকে ধর্ষণ করে। ধর্ষণের পর বিষয়টি না বলার জন্য সে কিশোরীকে মৃত্যুর হুমকি দেয়। ভয়ে মেয়েটি কাউকে কিছু জানায়নি। এক পর্যায়ে বিষয়টি জানাজানি হলে গা ঢাকা দেয় অভিযুক্ত কবিরাজ।

শ্রীপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা(ওসি)খোন্দকার ইমাম হোসেন বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, শুক্রবার রাতে জমা দেয়া ওই তরুণীর অভিযোগটি মামলা আকারে রুজু করা হয়। কিশোরীকে ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য গাজীপুর শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। আসামিকে গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।

আপনার মতামত লিখুন :