চাঁপাইনবাবগঞ্জে শেষ মুহূর্তে জমে উঠেছে কানসাট আম বাজার।

আলমগীর হোসেন, চাঁপাইনবাবগঞ্জ প্রতিনিধি
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  02:48 PM, 01 September 2020

Spread the love

চাঁপাইনবাবগঞ্জকে বলা হয়ে থাকে আমের রাজধানী। কারণ দেশের আমের চাহিদার অনেকটাই চাঁপাইনবাবগঞ্জের আম দিয়ে পূরণ হয়ে থাকে। এছাড়াও এখানকার সব আম যেমন সুস্বাদু তেমনি মিষ্টি। আমের মৌসুম প্রায় শেষের দিকে শেষ মুহুর্তে জমে উঠেছে আমের বাজার। শেষ সময়ে ভালো দাম পেয়ে করোনা ও আমপানের ভয়াবহতা কাটিয়ে উঠতে শুরু করেছে চাষী ও ব্যবসায়ীরা। এবছর প্রত্যাশার চেয়েও ভালো দামে আম কেনা-বেচা হয়েছে। ফলে পুষিয়ে যাবে বিগত বছরের লোকসান।

দেশের সবচেয়ে বড় আম বাজার চাঁপাইনবাবগঞ্জের কানসাট আম বাজার। এই বাজারে বর্তমানে আশ্বিনা আম বিক্রি হচ্ছে প্রতি মণ ৪২০০(চার হাজার দুইশ) টাকা থেকে ৪৮০০ টাকা পর্যন্ত। যা গত বছর এ আম বেচা-কেনা হয়েছে মাত্র ১৪০০ থেকে ২ হাজার টাকা মণ দরে।

কৃষি বিভাগের তথ্যানুয়ায়ী এবার চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলায় ৩৩ হাজার ৩৫ হেক্টর জমিতে ২ লাখ ৪৯ হাজার ৯৫০ মেট্রিক টন লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়। ল্যাংড়া, খিরশাপাত, ফজলী ও অম্ররপালী গাছ থেকে নামানো শেষ হয়েছে অনেক আগেই। এখন চলছে আশ্বিনা আম নামানো। আম গাছে বিশেষ প্যাকেজিং প্রক্রিয়ায় মাধ্যমে এবছর আশ্বিনা আমকে অনেক দিন পর্যন্ত সংরক্ষণ করে রাখা হয়েছে। শেষ মুহুর্তে ভাল দাম পেয়ে লাভবান হচ্ছেন আমচাষী ও ব্যবসায়ীরা।

এবার শেষ মুহূর্তে কানসাট আম বাজার ভরা মৌসুমের মত হয়ে উঠেছে। আর আমের চাহিদা বেশি থাকায় ক্রেতারও যেন ঠাঁই নেই। কানসাট বাজারে আম নিয়ে এসেছেন এলাকার আম ব্যবসায়ীরা তারা জানান, অন্যান্য বছরের তুলনায় এবছর আমের বাজার বেশ ভালো। আমরা কখনো আশা করতে পারিনি যে, আশ্বিনা আম ৫ হাজার টাকা মন বিক্রি করতে পারবো। বিগত দিনে আমের দাম না পাওয়ায় অনেক আম চাষী পানির দামে গাছে-পাতে আম বিক্রি করেছে। অল্প দামে বাগান কিনে অনেক ব্যবসায়ী এবছর লক্ষ লক্ষ টাকা লাভ করেছে।

কানসাট আম আড়ৎদার সমবায় সমিতি লিমিটেডের সভাপতি কাজী এমদাদুল হক বলেন, শেষ মুহুর্তে হলেও এখনও আমারে বাজার শেষ হয়ে যায়নি। বাজারে আরও এক মাসের মত আম থাকবে। তবে করোনা ও আমপানের প্রভাবে শুরুতে যেভাবে আম ব্যবসায় ক্ষতি হয়, সেটি এখন পূরণ হয়ে যাচ্ছে। এখন প্রতিদিনই এখান থেকে দেশের বিভিন্ন জায়গায় আম যাচ্ছে। কানসাটে বাজারে গড়ে প্রতিদিন ২৪/২৫ কোটি টাকার আম বেচাকেনা হয়েছে। শেষ মুহুর্তে এটি আরও বেড়েছে। তবে আমের পরিমান এখন একটু কমেছে। এ পর্যন্ত দেশের বিভিন্ন স্থানে শুধুমাত্র আম পরিবহন হয়েছে ১৮ হাজার ট্রাক।

আপনার মতামত লিখুন :